1. admin@dainikamaderphulpur.com : admin :
  2. chiran777@gmail.com : selim rana : selim rana
  3. info.popularhostbd@gmail.com : phulpur :
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৯:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ফুলপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের নবগঠিত ইউনিয়ন কমিটি শেরপুরের নকলায় পোস্টার টানানো নিয়ে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী সমর্থকদের সাথে ঘুষাঘুষি ১০ জুনের মধ্যে বেতন বোনাস পরিশোধের দাবিতে ওএসকে শ্রমিক ফেডারেশনের মিছিল সমাবেশ অনুষ্ঠিত তারাকান্দায় রাস্তা পাকা করণ কাজ উদ্বোধন কালবেলায় প্রকাশিত সংবাদের বিরুদ্ধে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর নিন্দা ও প্রতিবাদ ঈশ্বরগঞ্জে বিরোধপূর্ণ জমি জোর দখলের চেষ্টা, দোকানপাট ভাংচুর ফুলপুরে শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে গ্রেপ্তার ৩ ফুলপুরে ভাইটকান্দি স্কুল অ্যান্ড কলেজের কারিগরি শাখায় শতভাগ পাস ফুলপুরে বিনামূল্য চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদান

ফুলপুরে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন ঘটনার আঠারো দিনেও ধরা পড়েনি আসামী

Reporter Name

সেলিম রানা, ফুলপুর ( ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ
ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার ২নং রামভদ্রপুর ইউনিয়নের গজন্দর গ্রামে মায়ের সামনে মারধরের ঘটনায়  বড়ভাইয়ের হাতে ছোটভাই খুন হওয়ার ১৮ দিনেও ধরা পড়েনি কোনো আসামী। সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে গত ৭ মার্চ সন্ধ্যায় গজন্দর গ্রামের মৃত কফিল উদ্দিন ওরফে আবু বকর সিদ্দিকের বড় ছেলে মো. আব্দুর রশিদ দুই ছেলে ও পুত্রবধুকে নিয়ে তার ছোটভাই  মজিবর রহমানকে লাঠি দিয়ে মারধর করেন। পরে আহত অবস্থায় মজিবরকে উদ্ধার করে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে  ভর্তি করলে মজিবরের অবস্থা গুরুতর থাকায় চিকিৎসকরা তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানেও তার অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩১ মার্চ তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনার ৩১ মার্চ  নিহত মজিবর রহমানের স্ত্রী মাকসুদা বেগম বাদী হয়ে আব্দুর রশিদসহ ৬জনকে আসামী করে ফুলপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নিহত মজিবর রহমানের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রায় বছরখানেক আগে ছাগল, হাঁস, টিউবওয়েলের পানি ও বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে আব্দুর রশিদের ছেলের বউ খুকি বেগম চাচাশ্বশুর মজিবরকে ঝাড়– দিয়ে পিটিয়েছিল। ওই ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। স্থানীয়রা খুকিকে চাচাশ্বশুরের কাছে মাফ চাইতে বললেও সে মাফ চায়নি। এরপর গত ৩ মার্চ আব্দুর রশিদের ছোটছেলে জহিরুল ইসলামের স্ত্রী খুকি বেগম অপর চাচাশ্বশুরের বাড়ি গিয়ে চাচিশাশুড়ির সাথে কথা বলার সময় মজিবুর রহমান খুকি বেগমকে ঝাড়–  দিয়ে পিটিয়ে প্রতিশোধ নেয়। এরপর মজিবর তার শ্বশুরবাড়ি চলে যান। দুদিন পর শ্বশুরবাড়ি থেকে নিজের বাড়িতে আসলে তার বড়ভাই আব্দুর রশিদ, আব্দুর রশিদের দুই ছেলে ও পুত্রবধুসহ সবাই মিলে দা- লাঠি নিয়ে পুত্রবধুকে ঝাড়– দিয়ে পিটানোর প্রতিশোধ নিতে খোঁজাখুজি করতে থাকেন। মজিবর তা টের পেয়ে বাড়ি থেকে বের হওয়ার সুযোগ না পেয়ে ভয়ে তাদের গোসলখানায় পালিয়ে থাকে। সেখানে খুকী বেগম বেড়ার ফাঁক দিয়ে তার পা দেখে ফেলে। এরপর সবাই তার উপর হামলা করে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, মৃত মজিবর রহমানের মা নূর জাহান বেগম বলেন, ‘‘আমার ছেলে ২দিন বাড়িত আছিন না। ওইদিন আইছে যে আমি খুইজ পাইছি না। হে আওয়ার পর বেহের আত লাডি। লাডি দেইখ্যা আমি কই, মজিবর বাড়িত না। তে তারা লাডি লইয়া ঘুরে কেয়া? এরুম দুনামুনা কইরা এইবা আইছি। আইলে আমার আরেক পুত আনারুল আইয়া কইতাছে, এ মজিবর! অহন তারা তো বুইঝ্যালছে। ঘুরান পারতাছে। তুই এই বন্দবা দৌড় দে। এইডা কইয়া হে গেছেগা। পরে আমার পোলা বন্দবা আর যায়া পাইছে না। ওরার ডরে গোসলখানাত গিয়া পলাইছে। বাদে রশিদ ঘরের পাছে দেয়া আইছে। আয়া না পাইয়া যাইতাছেগা। এরপর খুকী আয়া কইতাছে, আব্বা! এই যে ঠেং দেহা যা। তহনই তারা গিয়া হাইরা টান মাইরা গোসলখানার দরজাডা ভাইঙালছে। ভাইঙা হাইরাই ধুমধুমি পিটনা শুরু করছে। এ ব্যাপারে মজিবরের স্ত্রী মাকসুদা বেগম বলেন, আমি আমার স্বামী হত্যার বিচার চাই।’’এ ঘটনায় কোন আসামি আটক হয়েছে কি না জানতে চাইলে ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, না, আটক হয়নি। এসআই মোফাখখির গেছে। আজকালের মধ্যে আসামি ধরা পড়তে পারে।

সংবাদ টি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved
Design BY Raytahost